গতকাল লন্ডনে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিকি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। এর ফলে টানা তৃতীয়বারের মত এমপি নির্বাচিত হলেন শেখ রেহা’নার মেয়ে। টিউলিপ সিদ্দিকিকে হারাতে এবার মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছিলেন তারেক জিয়া এবং তার নেতৃত্বে বিএনপির একটি অংশ।

তারা বিভিন্ন প্রকার অ’পপ্রচার এবং ষ’ড়যন্ত্রের আশ্রয় নিয়েছিল। বিভিন্ন গণমাধ্যমে তারা টিউলিপের বি’রুদ্ধে প্রচারণার অঢেল টাকাও খরচ করেছিল। কিন্তু সবকিছু ভেস্তে গেল, এই সমস্ত ষ’ড়যন্ত্র উপেক্ষা করে টানা তৃতীয় জয় পেলেন টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিকি।

বলা হচ্ছে এটা তারেকের আরেকটি পরাজয়। এরফলে লন্ডনে তারেকের অবস্থান আরো নড়বড়ে হয়ে গেল। কারণ লন্ডনে আওয়ামী লীগ বা বিএনপি যারাই করুক না কেন যখন কোন বাঙালি পার্লামেন্ট বা অন্যকোন স্থানীয় নির্বাচনে প্রার্থী হয় তখন দলমত নির্বিশেষে সেই বাঙালির পক্ষে যান বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিকরা। কিন্তু তারেক জিয়া লন্ডনে যাওয়ার পরেই এই পরিস্থিতি পাল্টাতে শুরু করে।

তারেক জিয়া বঙ্গবন্ধু পরিবারের বি’রুদ্ধে পরিকল্পিত ষ’ড়যন্ত্রের আশ্রয় নেন যা ব্রিটেনে বাঙালি বংশোদ্ভূতদের মধ্যে বিভাজনের রাজনীতি তৈরী করেছে। এই নির্বাচনের পর বিএনপির নেতৃবৃন্দই বলছে এটা একটা নোং’রা রাজনীতির অংশ। যে রাজনীতি তারেক শুরু করেছেন। নোং’রা রাজনীতি কখনো ভালো ফল দেয় না। বিএনপির অনেকেই অবশ্য তারেকের অগোচরে টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিকির পক্ষে প্রচার করেছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here