করোনাভাইরাসের আ’তঙ্কে স্থবির হয়ে আছে পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশও ব্যতিক্রম নয়। আগের দিনই সরকারি সিদ্ধান্তে স্থগিত হয়ে গেছে দেশের সব ধরনের খেলাধুলা।

স্থগিত হয়েছে দেশের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ ঘরোয়া ওয়ানডে টুর্নামেন্ট ঢাকা প্রিমিয়ার লিগও। তাতে আপাতত ‘বেকার’ সৌম্য সরকাররা। তবে মাঠে খেলা না থাকলেও ব্যক্তিগতভাবে অনুশীলন করেছেন সৌম্যসহ অনেক ক্রিকেটারই।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে মঙ্গলবার অনুশীলন করতে আসেন সৌম্য। অনুশীলনের ফাঁকেই জানালেন নিজের বর্তমান লক্ষ্যের কথা, ‘মাত্র একদিন হলো।

আমাদের দল থেকে বলা হয়েছে, একটা খেলা পেছানো হয়েছে। তা ছাড়া ব্যক্তিগতভাবে সবাই আমরা ফিটনেস নিয়ে সচেতন আছি এবং অনুশীলনও করব ব্যক্তিগতভাবে। যখনই বলবে যে, খেলা শুরু হবে, তখনই আবার মানসিকতাটা খেলার মধ্যে নিয়ে যাব।’

নিজেরা খেলার বাইরে থাকলেও সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন সৌম্য। তার মতে, সুস্থ থাকা’টাই মূল কথা, ‘এটা অবশ্যই সবার ভালোর জন্য। আশা করি, দেশের মানুষ সুস্থ থাকবেন, আমরাও সুস্থ থাকি। সুস্থ থাকা’টাই মুখ্য। সুস্থ থাকলে সামনে অনেক খেলা পাব। এর মধ্যে ফিটনেসের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকব।’

মাঠ থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানো সম্ভব কি-না… এমন প্রশ্নে অবশ্য চিকিৎসকদের নির্দেশনা মেনে চলার কথা বললেন সৌম্য, ‘এটা আমি বলতে পারব না, ডাক্তাররা ভালো বলতে পারবে। তবে ব্যক্তিগতভাবে সতর্ক থাকা ভালো।

যেগুলা নিয়ম আছে, মেনে চলতে হয়, সেগুলা মেনে চলছি। তবে খেলোয়াড় হিসেবে আমি সবসময় মাঠে থাকতে চাই, খেলতে চাই। আর যেহেতু একটা ভাইরাস আ’তঙ্ক চলছে, যত দ্রুত সম্ভব পরিস্থিতি ভালো হলে আমাদের জন্যও ভালো।’

গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের সৌম্য ছাড়াও এদিন একাডেমিতে অনুশীলনে আসে আবাহনী লিমিটেডের খেলোয়াড় ও কোচরা। অনুশীলন তো করেনই, সঙ্গে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কে’টেও উদযাপন করেন তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here