লক্ষ্মীপুরে দিনে-দুপুরে নিজ ঘরে হিরা মনি (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রীকে ধ’র্ষণ করে হ’ত্যা করেছে দূর্বত্তরা।
এদিকে দ্রু’ততম সময়ের মধ্যে লক্ষ্মীপুর সদরের নবম শ্রেণী পড়ুয়া, ১৪ বছর বয়সী স্কুলছাত্রী হিরা মনি হ’ত্যার বিচার ও ধ’র্ষকদের দৃষ্টান্তমূ’লক শা’স্তি দাবী করছেন গোলাম রাব্বানী।

এর আগে সদর উপজে’লার দক্ষিন হামছাদী ইউনিয়নের নন্দনপুর গ্রামে এ ঘ’টনা ঘটে। নি’হত হিরা মনি স্থানীয় মো. হারুনুর রশিদের মে’য়ে ও পালেরহাট পাবলিক হাইস্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

নি’হতের স্বজন ও পু’লিশ জানায়, স্কুলছাত্রী হিরা মনি সকালে একই গ্রামের তার নানা বাড়ি থেকে আজিম উদ্দিন পাটোয়ারী বাড়ির নিজ বাড়ি আসেন। তার বাবা হারুনুর রশিদ অ’সুস্থ্য জনিত অবস্থায় ঢাকায় হাসপাতালে ভর্তি থাকায় তার মাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা সবাই ঢাকায় অবস্থান করছিলেন।

অ’সুস্থ্য বাবাকে দেখতে ঢাকায় যাওয়ার জন্য জামা কাপড় নিতে নানা বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে আসলে দুপুরে নিজ বাড়িতে ঘরের ভিতরের একা পেয়ে তাকে ধ’র্ষণ করে হ’ত্যা করা হয়।

পরে দুপুরের খাবার খেতে নানার বাড়িতে না যাওয়ায় তার নানী ওই বাড়িত এসে হিরা মনিকে তাদের ঘরে বিবস্ত্র অবস্থায় মৃ’ত পড়ে থাকতে দেখেন। এ সময় তার চি’ৎকারে আশে পাশের লোকজন এসে পু’লিশকে খবর দেয়। পরে খবর পেয়ে সদর থানা পু’লিশ ঘ’টনাস্থলে গিয়ে ম’রদে’হ উ’দ্ধার করে হাসপাতালের ম’র্গে পাঠায়।

নি’হত হিরা মনির মামা শাহজাহান বলেন, হিরা মনি আমাদের বাড়িতে ছিল। সকালে তাকে পালেরহাট নামিয়ে দিয়ে যাই। বিকেলে এমন ঘ’টনা শুনতে হবে, তা কল্পনাও করিনি। যারা আমার ভাগ্নিকে হ’ত্যা করেছে তাদের গ্রে’ফতার করে বিচারের দাবি জানায়।

পালেরহাট পাবলিক হাইস্কুলের প্রধান শি¶ক বেলায়েত হোসেন খান জানান, হিরা মনি মেধাবী ছাত্রী ছিল। যারা তাকে নিষ্ঠুরভাবে হ’ত্যা করেছে, সুষ্ঠু ত’দন্তের মাধ্যমে তাদেরকে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে স্কুল ছাত্রী ধ’র্ষণ ও হ’ত্যাকাণ্ডের ঘ’টনায় বিক্ষু’ব্ধ হয়ে উঠেছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। তারা এ ঘ’টনার সুষ্ঠ ত’দন্ত করে জড়িদদের দৃষ্টান্ত মূ’লক শা’স্তির দাবি জানান।
লক্ষ্মীপুর সদর থানার ওসি (ত’দন্ত) মোসলেহ উদ্দিন জানান, ঘ’টনাস্থল পরিদর্শন করে ছাত্রীর ম’রদে’হ উ’দ্ধার ও আলামত জ’ব্দ করা হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্কুল ছাত্রীকে ধ’র্ষণ করে হ’ত্যা করা হয়েছে। ঘ’টনার সাথে জ’ড়িতদের খুঁজে বেরা করে গ্রে’ফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পু’লিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here