ভারতীয় অর্থনীতি নিয়ে চা’প বাড়লো কেন্দ্রীয় স’রকারের। লকডাউনের জেরে কোটি কোটি মানুষ কর্মসংস্থান হারিয়ে ফে’লেছেন। সূত্রের খবর,ইন্টারন্যাশনাল মনিটরি ফান্ড বা আইএমএফ-র পূর্বাভাস, আগামী দিনে ভারতে মাথাপিছু জি’ডিপি বাংলাদেশের চেয়েও কম হতে পারে।

যদিও আগামী বছর ভারতীয় অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে পারবে বলে জানা গেছে। এই পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রীয় স’রকারকে দুষলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

আইএমএফ-এর অনুমান, চলতি বছরে ভারতের জি’ডিপি ১০.৩ শতাংশ সংকুচিত হবে! তবে, আগামী বছর ঘুরে দাঁড়াবে ভারতীয় অর্থনীতি। আর্থিক বৃ’দ্ধির হার ৮.৮ শতাংশ হতে পারে। অন্যদিকে এই বছর মাথা পিছু জি’ডিপি ভারতের চেয়ে বেশি হবে প্রতিবেশী বাংলাদেশের। এই ত’থ্য আসার পরেই কেন্দ্রের বি’রুদ্ধে সরব বি’রোধীরা।

প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বিজেপির নীতিকে দোষ দিয়ে টুইট করে লেখেন,”যে ছয় বছর ধরে যে ঘৃণা মিশ্রিত সাংস্কৃৃতিক জাতীয়তাবাদের রাজনীতি চালাচ্ছে বিজেপির, তারই দারুন একটি কৃতিত্ব এই ফলাফল।”

উ’দ্বেগ বাড়িয়ে ভারতীয় অর্থনীতি ১০.৩ শতাংশ হারে সঙ্কুচিত হতে পারে বলে পূর্বাভাস পাওয়া গেছে। ব্রাজিলের অর্থনীতি ৫.৮ শতাংশ হারে, রাশিয়ার অর্থনীতি ৪.১ শতাংশ হারে এবং দক্ষিণ আফ্রিকার অর্থনীতি ৮ শতাংশ হারে সঙ্কুচিত হতে পারে বলে সূত্রের খবর। ব্যতিক্রমী ভাবে চীনের অর্থনীতি ১.৯ শতাংশ হারে বাড়তে পারে।

আইএমএফের হিসেব বলছে,ভারতের মাথা পিছু জি’ডিপি ১৭৮৮ ডলার করে কমবে। যেখানে বাংলাদেশের মাথা পিছু জি’ডিপি হবে ১৮৮৮ ডলার। বাংলাদেশীরা ভারতীয়দের থেকে অর্থনৈতিক ভাবে উন্নত হবেন।

আগামী বছরই ভারতের অর্থনীতি ৮.৮ শতাংশ হারে বৃ’দ্ধি হবে। এমনকি দ্রু’ততম হাতে অর্থনীতি বৃ’দ্ধির সম্মান পাবে ভারত। আইএমএফ জানিয়েছে যে,বিশ্ব অর্থনীতি এবছর ৪.৪ শতাংশ হারে সংকুচিত হবে ও আগামী বছর ৫.২ শতাংশ হারে বাড়বে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকে জানানো হয়েছে যে,চলতি অর্থবর্ষে মোটের ও’পর নয় শতাংশের ও’পর সংকুচিত হবে জি’ডিপি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here