বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা আ’তঙ্ক। এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাদ যায়নি ভারতও। এ ভাইরাসে এরইমধ্যেই দিল্লি ও কর্ণাটকের দুজনের মৃ’ত্যু হয়েছে, এবং আ’ক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১০০ জন।

প্রা’ণঘা’তী এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে বিশ্বব্যাপী সচেতনতার বার্তা দিচ্ছেন চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা। তবে এসব কিছুর মধ্যেই আজব কিছু উপায়েরও অনেক নিদর্শন পাওয়া যাচ্ছে। যার মধ্যে এগিয়ে রয়েছেন ভারতের কিছু নেতারা। করোনা নিয়ে দিলিপ ঘোষের পর এবার নতুন উপায় জানালেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গিয়। তিনি বলেছেন, ৩৩ কোটি দেবতার দেশ ভারত। এখানে করোনায় কারো কোনো কিছুই হবে না। বিজেপি নেতার এ উপায়কে ঘিরে সৃষ্টি হয়েছে বিতর্কের।

বিভিন্ন যজ্ঞ, পূজা-অর্চনা, গোমূত্র-গোবর দিয়ে করোনা সংক্রমণ সারানোর ব্যাপারগুলো তো ছিলোই, এবার সে তালিকায় যুক্ত হয়েছে নতুন এই উপায়টি। এছাড়া করোনা সাড়াতে দেবতাদের শরণাপন্ন হতেও পরামর্শ দিচ্ছেন বিজেপি নেতারা।

এর আগে বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলিপ ঘোষ বলেন, দেবী মায়ের প্রসাদ খেলে করোনা হবে না। মায়ের আশীর্বাদ আমাদের মাথায় রয়েছে বলেই আমরা সুরক্ষিত আছি। এরপর দিলিপের এ তত্ত্বকে ঘিরে শোরগোল পড়ে যায় চিকিৎসক মহলে। একুশ শতাব্দীতে দাঁড়িয়ে বিজেপি নেতার এমন কথায় অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন অনেকে। এবার সেই একইপথে হাটলেন বঙ্গ বিজেপির ভারপ্রাপ্ত নেতা কৈলাস বিজয়বর্গিয়।

শনিবার মধ্যপ্রদেশে করোনা আ’তঙ্ক দূর করতে বিরাট হনুমান পূজার আয়োজন করে বিজেপি নেতা। তারপরই সংবাদমাধ্যমকে কৈলা’শ জানান, ৩৩ কোটি দেবতাদের দেশ ভারতে করোনা কিছুই করতে পারবে না। কারণ দেশটি অনেক পবিত্র।

করোনা আ’তঙ্কে ভারতের অধিকাংশ রাজ্যে স্কুল-কলেজ ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে বিভিন্ন ক্রীড়া অনুষ্ঠানও, পিছিয়েছে আইপিএল লিগ। দেশটিতে যেকোনো বড় জমায়েএ নি’ষেধাজ্ঞা জারি করেছে কেন্দ্র।
সূত্র- সংবাদ প্রতিদিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here