চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শহীদ আব্দুর রব হলের একটি রুম থেকে ইতালি ফেরত এক যুবককে উ’দ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের আ’শঙ্কায় ওই রুমে অবস্থান করা ৬ জনকে ফৌজদারহাটস্থ হোম কোযারেন্টাইনে পাঠিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি।

রোববার (১৫ মার্চ) দিবাগত রাত আনুমানিক দুইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ আব্দুর রব হলের ৩২০ নাম্বার কক্ষ থেকে তাদের উ’দ্ধার করা হয়।

তারা হলেন, বি.বাড়িয়ার কসবা উপজে’লার দস্তগীর হোসাইন মাহফুজ, মাছিহাতা সদর, বি. বাড়িয়ার সিরাজাম মুনির দুর্জয়, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের (কুমেক) শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম ও ইব্রাহিম খলিল, ভাটামাঠার জামাল উদ্দিন, ওই কক্ষে অবস্থান করা চবির উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের ১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী শাহনেওয়াজ রানা ও একই বিভাগের ১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের জয়।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত ৫ মার্চ বিমানবন্দরের কোন প্রকার বা’ধার সম্মুখিন না হয়ে ইতালি থেকে ফেরেন দস্তগীর হোসাইন মাহফুজ নামে ওই যুবক। পরে সাজেক যাওয়ার উদ্দেশ্যে সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন তিনি। এসময় তার সাথে আসেন নিজ এলাকার বন্ধুরা। আর তাদের আশ্রয় দেন শাহনেওয়াজ নামের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থী।

কয়েকদিন যাবৎ তারা হলে অবস্থান করার পর রোববার রাতে খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিযাল বডি তাদের উ’দ্ধার করে তাৎক্ষণিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠায়।

এ বি’ষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আহসানুল কবির পলা’শ বলেন, আমরা তাৎক্ষণিকভাবে ওই রুম থেকে উ’দ্ধার করা ৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছি। পরে তাদের পরীক্ষা নিরীক্ষা করে যাচাই করা হবে। আর যে শিক্ষর্থী তাদের এনেছে তার বি’রুদ্ধেও ক’ঠোর ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে এমন ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়জুড়ে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা আ’তঙ্ক। শিক্ষার্থীরা ইতালি ফেরত যুবককে আশ্রয় দেয়া যুবকের বি’রুদ্ধে ক’ঠোর শা’স্তিমূলক ব্যবস্থার দাবি জানান।

অন্যদিকে চবির সকল শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে শহীদ আবদুর রব হলের ছাত্ররা হলটিকে আগামী ৪৮ ঘন্টার জন্য স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টাইন ঘোষণা করেছেন। উক্ত সময়ের মধ্যে হলের সকল শিক্ষার্থী স্বেচ্ছায় হলের বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

এই ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কোয়ারেন্টাইনে প্রেরিত ৬ জনের SARS COV-2 বা Covid19 ভাইরাস শনাক্তের রিপোর্ট পাওয়া যাবে। আর সে অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here