শুক্রবার মসজীদে গিয়ে জুম্মার নামাজ আদায় করতে না পেরে কা’ন্নায় ভেঙ্গে পড়েন মহান জাতীয় সংসদের মাননীয় ডেপুটি স্পীকার এ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি ৷

জুম্মার বিকল্প যদিও যোহর এটাও ইসলামেরই বিধান তবুও আজ বুকটা ফে’টে যাচ্ছে বলে তিনি মুনাজাতে উল্লেখ করেন।

তার উপর নামাজ ফরজ হওয়ার থেকে জীবনে এই প্রথম মসজিদে গিয়ে তিনি জুম্মা নামাজ আদায় করতে পারেনি। তিনি মহান আল্লাহর দরবারে ফরিয়াদ করে বলেন-
হে দয়াময় তুমি আর কতদিন তোমার ঘর থেকে আমাদের কে দুরে রাখবে ? হে দয়ার সাগর এই বাংলাদেশকে তুমি হেফাজত করো।

এ্যাডঃ ফজলে রাব্বি মিয়া এমপি পবিত্র জুম্মার এই দিনে মহান আল্লাহ পাকের দরবারে গাইবান্ধা জে’লার মানুষ তথা সমস্ত দেশবাসীর জন্য পরম করুনাময়ের দয়া ভিক্ষা, ক্ষমা, রহমত ও বর্তমানে করোনা নামক এই মহামারি থেকে মুক্তি চেয়ে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন।

মোনাজাত শেষে তিনি বলেন ইনশাআল্লাহ সচেতনতা ও সরকারি স্বাস্থ্য বিধি মানলে কারো কোন ভ’য় নাই। সুতরাং কেউ কোনো দ্বিধাদ্বন্দে না থেকে যার যার অবস্থান থেকে বাসায় যোহরের নামাজ পড়ে নিন।

কারন, বিভিন্ন বাড়িতে জুমার আয়োজন করলে তাতে কিছুটা হলেও জনসমাগম হবে। সুতরাং যোহর পড়ুন। মসজিদে জুমার নামাজ না পরে বাসায় পরিবারের সদস্যবর্গকে সাথে নিয়ে কয়েকজন মিলে যোহরের নামায কিংবা একাকী পড়াই নিরাপদ। জামাতে নামাজ না পড়লেও এতে কোন সমস্যা নাই।

এটা ঠিক যে, মসজিদে গিয়ে জুম্মা আদায় করতে না পারার কারণে অনেক ক’ষ্ট হবে।কারন, বিগত একশ বছরে এরকম কোন রেকর্ড নেই। কিন্তু ইসলামের মূল বিধান যেখান থেকে এসেছে এই সময়গুলোতে ছাড়ের বিধানও সেখান থেকে এসেছে। সুতরাং আবেগতাড়িত না হয়ে শরিয়তের বিধান মেনে চলুন।

আল্লাহ রাববুল আলামীন আমাদের ক্ষমা করুন। দ্রুত পরিস্থিতির পরিবর্তন করে দিন, আমীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here